কাজী নওশাবার ডিভোর্স

বিনোদন প্রতিবেদক, রবিউল ইসলাম রুবেল

ডিভোর্সের জন্য উকিলের কাছে গিয়েছে নওশাবা এবং নাফিস।তাদের ডিভোর্স কেন হবে তা মনোযোগ সহকারে শুনছে এডভোকেট জয়িতা মহুল।সব কিছু শুনেন তিনি।তবে এটা বাস্তবে নয়। হ্যাঁ পাঠক কাজী নওশাবা এবং নাফিস বিন্দু “ডিভোর্স” নামের একটি শর্টফিল্মে একি সাথে জুটি বেধেছেন। আর এখানে নওশাবা এবং নাফিস বিন্দু স্বামী-স্ত্রীর চরিত্রে অভিনয় করেছেন এবং জয়িতা মহুল একজন এডভোকেট এর চরিত্রে।সব সময়ের মত এবারও পরিচালক অপরাজিতা সংগীতা নির্মাণ করছেন একটি সামাজিক সমাজ সচেতনতামুলক শর্টফিল্ম।মানবাধিকার কর্মী বলে নয় তিনি চান সমাজ সচেতনতা মুলক গল্প নিয়ে কাজ করতে।

ডিভোর্স নিয়ে পরিচালক অপরাজিতা সংগীতা কথা বলেন বিনোদন প্রতিবেদক রবিউল ইসলাম রুবেল এর সাথে তিনি বলেন-আমি মুলত সামাজিক সচেতনতা মুলক কাজ করতে পছন্দ করি। নারী দের নিয়ে বিভিন্ন ধরনের কন্টেন্ট এর উপর কাজ করতে ভাল লাগে।যেকোনো স্ক্রিপ্ট হাতে এলেই আগে দেখি সমাজ সচেতনতা মুলক কোন মেসেজ আছে কি না।আমার মাথায় সব সময় ঘুরতে থাকে কিভাবে দেশের,সমাজের সামাজিক সমস্যা গুলো তুলে ধরতে।কিভাবে তার প্রতিকার করা যায় তা নিয়ে চিন্তা করে কাজ করি।তবে অন্য ধরনের কাজও করব। আর “ডিভোর্স” এমনই একটা শর্টফিল্ম। যেখানে নারী দের উপর কিছু নৃশংসতার কথা ভেবে একজন স্ত্রী সন্তান নিতে ভয় পায়।ভয় করে তার কারণ ছেলে হলে ধর্ষক হতে পারে মেয়ে হলে ধর্ষণ হতে পারে।এসব নিয়ে দাম্পত্য জীবনে কলহ হয়।এভাবে গল্পটা এগিয়ে নিয়েছি।এই শর্টফিল্মটি মুলত সোশ্যাল মিডিয়ায় জন্য নির্মিত এবং ইন্টারন্যাশনাল ভাবে অন-এয়ার করার চিন্তা আছে।আশা করি দর্শক এখানে তুলে ধরা খারাপ দিক বর্জন করবে এবং ভাল দিক গুলো গ্রহণ করবে।এতেই আমার এবং আমার টিমের নির্মাণ সার্থক হবে।


ডিভোর্স নিয়ে মুল চরিত্রে অভিনয়কারী জনপ্রিয় অভিনেত্রী কাজী নওশাবা আহমেদ বলেন- সব সময় চেষ্টা করি ভিন্ন ধরনের চরিত্রে কাজ করতে ভিন্ন ধরনের কাজ নিয়ে দর্শকদের মাঝে হাজির হতে।জানিনা কতটা পারছি।তবে দর্শকদের ভালবাসায় মনে হয় আমাকে এবং আমার কাজগুলোকে দর্শক সাদরে গ্রহণ করছে।এবারো তেমনই একটা শর্টফিল্ম ডিভোর্স নিয়ে আসছি।আমার বিপরীতে আছে নাফিস বিন্দু,জয়িতা মহুল সহ অনেকে।
সামনে কি কোন কাজ করছেন এমন প্রশ্নে নওশাবা বলেন-আলোচনা চলছে।

তবে এ বিষয় নিয়ে কিছু বলা নিষেধ আছে পরিচালকের পক্ষ থেকে। আশা করছি সামনে জানাতে পারব।


ডিভোর্স টিমে ফটোগ্রাফার হিসেবে আছেন সৈকত আমীন, মেকাপে আছেন ইমরুল কায়েস রনি। খুব শিঘ্রই দর্শক এই অসাধারণ কন্টেন্ট ডিভোর্স দেখতে পাবে।